উপন্যাস

অরক্ষণীয়া PDF Download শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

অরক্ষণীয়া উপন্যাস পিডিএফ ডাউনলোড শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
অরক্ষণীয়া উপন্যাসটি শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের একটি বর্ণ বিরোধী উপন্যাস। উপন্যাসটিতে জ্ঞানদা নামের একটি কালো মেয়ের কথা বলা হয়েছে, সমাজের দরিদ্র এবং রূপ হীনা একটি মেয়ের অবস্থান যে কত অসহায় তার সমসাময়িক চিত্র খুব সুন্দর ভাবে তুলে ধরেছেন কথা সাহিত্যিক শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

সেই সময়ে মেয়েদের অনেক আগেই হয়ে যেত কিন্তু গেন্দার বয়স পনেরো বছর পার হয়ে গেলেও তাকে বেরোতে পারেনি তার গরীব অসহায় মা দূর্গামনি। দুর্গা মনি নিজেই অসুস্থ এবং শয্যাগত সেখানে কন্যার বিবাহ দেওয়া টা তার কাছে অনেক বড় কঠিন ব্যাপার। শুধুমাত্র একটি মেয়ে কালো ও দরিদ্র বলে তার জীবনটা কি পরিমাণ নরক যন্ত্রণায় ভরে উঠেছে তা এই উপন্যাসটি না পরলে বোঝা যাবে না।

জ্ঞানদা অত্যন্ত ভালো মেয়ে এবং সৎ কিন্তু শুধুমাত্র গায়ের রং এর জন্য শেষ পর্যন্ত তাকে অনেক কষ্ট সহ্য করতে হয়। অমল নামে একজন অসভ্য ও নারীর প্রতি প্রতিহিংসামূলক ব্যবহারকারী ব্যক্তির সাথে সমঝোতা করতে হয় এবং তাকে বিয়ে করতে বাধ্য হতে হয়। উপন্যাসটির শরৎ বাবুর উপন্যাস গুলোর মধ্যে একটি অন্যতম হৃদয় স্পর্শী ও বেদনাদায়ক কাহিনী সম্বলিত হয়েছে।

জ্ঞানদার পনেরো বছর পার হয়ে গেলেও তাকে বিয়ে দেওয়া সম্ভব হয়নি শুধুমাত্র তার গায়ের রং এবং টাকা পয়সার অভাবের কারণে। তাই সমাজের মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি এমন যেন জ্ঞানদকে বিয়ে দিতে হলে যার তার সাথে দেওয়া উচিত হোক সে চরিত্রহীন লম্পট কিংবা খুনি। বিবাহ তাকে দিতেই হবে কেননা জ্ঞানদা সমাজে এক অসহায় নারী যার না আছে এরূপ না আছে ঐশ্বর্য।

অসহায় দুর্গা মনি তারা একমাত্র কন্যাকে নিয়ে অনেক লাঞ্ছনা গঞ্জনা সহ্য করে যদিও তাদের কোনো দোষ নেই। পুরুষতান্ত্রিক সমাজে তারা নির্যাতিত ও বঞ্চিত। শেষ পর্যন্ত জ্ঞানদা কে অমলের মতন একজন দুশ্চরিত্র লম্পট এর সাথে সমঝোতা করতে হয়। বড় অন্যায় করেও অমলের কোন বিচার হয় না বরং উপন্যাসের শেষ পর্যায়ে গিয়ে অনেক বড় বড় কথা বলে সে আর জ্ঞানদা সবই মুখ বুজে সহ্য করে নেয়। হয়তো তখন নারীদের ভাগ্যে এটাই লেখা ছিল।

শরৎচন্দ্রের এই অসামান্য অসাধারণ উপন্যাসটি পড়তে চাইলে আপনি তখন আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে পারেন। আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের এই বিখ্যাত উপন্যাসটির পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করতে পারেন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন।

অরক্ষণীয়া PDF

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.