উপন্যাস

অন্যদিন PDF Download হুমায়ূন আহমেদ

জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদ রচিত চমৎকার একটি উপন্যাস হল ‘অন্যদিন’। এটি তার রচনা গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি উপন্যাস। এই উপন্যাসটি প্রকাশিত হয়েছে ১৯৯৫ সালে। উপন্যাসটির চতুর্থতম সংস্করণ হয় ২০১৪ সালে। বইটি প্রকাশনা করেছে অন্বেষা প্রকাশন। বইটি হার্ডকাভারে ছাপা হয়েছে। বইটির মোট পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ৬৪টি। বইটির মুদ্রিত বাংলাদেশী মূল্যঃ ১২০ টাকা। বইটির অনলাইন পিডিএফ সাইজ ১১ এমবি।

‘অন্যদিন’ একটি সমকালীন উপন্যাস। তার সবগুলো উপন্যাসই অসাধারণ। তবে তার এই উপন্যাসে খুঁজে পাওয়া যাবে হুমায়ুন আহমেদের রসাত্ববোধে রচিত কাহিনী আর গভীর জীবন দর্শনে গড়া একটি গল্প। এই উপন্যাসটি পড়তে চাইলে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ফ্রি পিডিএফ ডাউনলোড করে পড়তে পারবেন। যারা বইটি এখনো পড়েননি তারা তাড়াতাড়ি আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে বইটি পড়ে ফেলুন।

অন্যদিন উপন্যাসের মূল কাহিনীঃ

উপন্যাসটির সূচনা হয়েছে ১৯৬৫ সালের কাহিনী নিয়ে। সে সময়কার দেশের অবস্থা ভালো না থাকায় গ্রাম থেকে শহরে পড়তে আসা এক যুবকের সংগ্রামের গল্প। গ্রাম থেকে ঢাকা শহরে পড়তে আসে রঞ্জু নামের একটি ছেলে। পড়তে এসে সে পান্থনিবাস নামে একটি মেসে ওঠে। সেখানে গিয়ে দেখে নানান রকমের লোক সেই মেসে বসবাস করে। সেখান থেকেই গল্পের সূচনা হয়।

পান্থনিবাসে বসবাস করা প্রতিটা মানুষের আলাদা আলাদা জীবনের সুখ দুঃখের কাহিনী নিয়ে রচিত হয়েছে উপন্যাসটি। কীভাবে জীবন সংগ্রামে টিকে থাকতে মানুষ গুলো লড়াই করে যায় তারই যেনো বাস্তব রূপ ‘ অন্যদিন’। শফিকের মাধ্যমে রঞ্জু এসে পান্থনিবাসে ওঠে। সেখান তার সাথে পরিচয় হয় নিশিনাথ নামক একটি ছেলের সাথে। খুব ভালো বন্ধুত্ব হয়ে যায়। পেশায় সে একজন গনক, মানুষের ভাগ্য গননা করে। যদিও মানুষ আর এইসব বিশ্বাস করে না। তবুও তাদের চার পুরুষের পেশা এটা। আরো বিভিন্ন ধরণের মানুষ এক ছাদের নিচে বসবাস করছে। উপন্যাসে হুমায়ুন আহমেদ দেখিয়েছেন কীভাবে তাদের জীবন সংগ্রামে টিকে থাকার লড়াই আর সাফল্যের স্বপ্ন দেখে হাল না ছাড়ার মনমানসিকতা।

আরো দেওয়া রয়েছে রঞ্জুর পরিবারের আর পরিবারের লোকজনের বর্ণনা। রন্জুর বন্ধু শফিকের বর্ণনা দেওয়া হয়েছে। শফিক আগের চেয়ে বেশি চন্ঞ্চল হয়ে গেছে। সে আর আগের মতো নেই, বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে দিয়েছে অনেক আগেই। এক শীতের সময় রঞ্জুর বাবা এলো তার মেসে। তিনি এসে গ্রামের অদ্ভুত সব রকম ঘটনা বর্ণনা করলেন। শুনে রঞ্জু অবাক হয়ে গেলো।

এরপর একদিন তার বোনের চিঠি এলো গ্রাম থেকে। সেই চিঠি থেকেও রঞ্জু অনেক কিছু জানতে পারলো। তার বোনের বর্ণনাতে জানা যায়, তার নাম পারুল। উপন্যাসটি পড়ে মনে হয় পারুল বেশ বুদ্ধিমতী একটি মেয়ে। নিশিনাথও বলেছে পারুল একটি চমৎকার বুদ্ধিমতী কিশোরী। বোনের চিঠির মাধ্যমে জানার পর শফিক তাকে অনেক পরামর্শ দিল। কিন্তু সেগুলো কি আসলেই কাজে লাগবে কিনা তা রঞ্জু জানে না।

এইভাবেই জীবন সংগ্রামে তাদের দিন এগিয়ে যেতে থাকে। রন্জুর বোন তার ভায়ের জন্য ঠিক কাজটাই করেছে। তার বাবার একটু সমস্যা রয়েছে তেমন একটা স্বাভাবিক মানুষ নয় তারজন্য অনেক কিছু তার মা কেই সামলাতে হয়। এইসব কিছুর বিস্তারিত উপন্যাসে সুন্দর ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। উপন্যাসটি পড়ে অনেক তীক্ষ্ণ দৃষ্টিতে বিচার করতে পারলে বইটা পড়া সার্থক হবে ।

অন্যদিন PDF

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.