উপন্যাস

ছায়াবীথি PDF Download হুমায়ূন আহমেদ

বাংলাদেশের জনপ্রিয় অপরাজেয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের অসাধারণ একটি উপন্যাস হলো “ছায়াবীথি”।এই উপন্যাস কে সামাজিক উপন্যাস বা প্রেম উপন্যাস ও বলা যায়। আমাদের ওয়েবসাইটে আপনাদের জন্য “ছায়াবীথি” উপন্যাসটির পিডিএফ ফাইল দিয়ে দেয়া হয়েছে। আপনারা যারা হুমায়ূন আহমেদ স্যারের বই পড়তে পছন্দ করেন শুধুমাত্র তাদের উদ্দেশ্যে আমাদের এই প্রচেষ্টা। আমাদের ওয়েবসাইটে এ রকম অসংখ্য বই এর পিডিএফ ফাইল আছে।

এই বইটিতে এমন অনেক কিছু তথ্য আছে যা আপনাকে অনেক কিছু জানতে শিখাবে ও বুঝতে শিখাবে ভালোবাসা কি এবং ভালোবাসার মানুষের সাথে সম্পর্কের মানে কতটুকু? আমাদের ওয়েবসাইট থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ও সহজ উপায় ডাউনলোড করে নিতে পারবেন বইটি। চমৎকার এই প্রেম উপন্যাস আপনারা যদি পড়তে চান তাহলে আর দেরি না করে বইটির পিডিএফ ফাইল সংগ্রহ করে ফেলুন।

এই উপন্যাসটি একটি সমকালীন উপন্যাস।উপন্যাসটিতে স্যার পরিবারের মানুষদের মধ্যে সম্পর্ক গুলো কেমন হতে হয় এবং তাদের তাদের কাছে কতটুকু চাওয়া-পাওয়া থাকতে পারে সে সব কিছুরই মেলবন্ধন করেছে। এই উপন্যাসটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছে 1994 সালের ফেব্রুয়ারীতে এবং বইটি দ্বাবিংশ বারের মতো প্রকাশিত হয়েছে 2015 সালের এপ্রিল মাসে।

বইটি প্রকাশ করেছে পার্ল পাবলিকেশন্স এবং বইটির প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। বইটিতে মোট পৃষ্ঠা সংখ্যা রয়েছে 127 টি।বর্তমানে বাংলাদেশে বইটির মুদ্রিত মূল্য হল 176 টাকা। এখনো যারা বইটির হার্ড কপি সংগ্রহ করতে পারেননি তারা আপনাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে বইটি পড়ে ফেলুন।জোর দিয়ে বলতে পারি কিছুটা সময় অনেক ভালো কাটবে।

কাহিনী সংক্ষেপ

এই উপন্যাসে প্রধান চরিত্র হলো নায়লা। নায়লা আর দশ বারোটা গৃহিণীর মতই একটি বাড়ির কর্ত্রী।তার ছোট সুখের সংসার।তার সংসারে আছে হাজবেন্ড জামান এবং ছোট্ট ছেলে বাবু।সে একটা অল্প বেতনের চাকরি করে। তারা মধ্যবিত্ত ছিল। মধ্যবিত্ত পরিবারের অধিকাংশ স্বপ্ন বা চাওয়া অপূর্ণ থেকে যায়।সেরকম নায়লার ক্ষেত্রে ঘটে কিন্তু সে বিষয়ে নায়লার কোন অভিযোগ ছিল না। নায়লার হাজবেন্ড তাকে খুব ভালোবাসতো। নায়লাও তার বর কে খুব ভালোবাসতো।তাদের ছিল সুখী পরিবার।

নায়লার সবকিছুই ভালো ছিল কিন্তু একটা দোষ ছিল সে খুব উচ্চাভিলাষী ছিল।হঠাৎ করেই তিক্ততার দানা বাঁধতে শুরু করে তাদের সংসারে।জামানের বন্ধু আলম তাদের বাড়িতে আসে।সে অনেকদিন বিদেশে থাকতো অনেক টাকা পয়সা ও রোজগার করছে। আলম সবসময় নায়লাকে অভিভূত করার চেষ্টা করত।কিন্তু প্রথমদিকে নায়লা পাত্তা দেয়নি কিন্তু পরবর্তীতে আলমের কথায় সায় দেয়া শুরু করে।আর এরই মাধ্যমে জামান ও নায়লার সুখের সংসারে ভাঙ্গন ধরতে শুরু করে। পরবর্তীতে নায়লা তার ভুল বুঝতে পারে।তার আসল ঠিকানা জামান,আলম নয়। জামান হলো তার ভালোবাসা আর আলম হলো তার ভ্রম।

এই উপন্যাসটিতে লেখক বোঝাতে চেয়েছেন মানবমন বহুমুখী কোন সময় কোন দিকে মোড় নেয় বোঝা যায় না। এই উপন্যাসটিতে অন্তর্নিহিত তাৎপর্য গুলো খুবই বলিয়ান। আমার মনে হয় উপন্যাসটি ছোট-বড় সব পাঠকের অনেক ভালো লাগবে কারণ এখানে সম্পর্কগুলোর মনস্তাত্ত্বিক দিক ও তুলে ধরা হয়েছে। এই উপন্যাসে লেখক মানবচরিত্রের কিছু বিস্ময়কর দিক সুনিপুণ দক্ষতার সাথে পাঠকদের সামনে তুলে ধরেছেন।

শেষ পর্যন্ত নায়লা তার সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পেরেছিল ঠিকই কিন্তু হঠাৎ করে তার কেনইবা এই পরিবর্তন আর কেনইবা ভালোবাসাকে ছেড়ে মোহের দিকে পা বাড়িয়েছিল এইসব প্রশ্নের সমাধান পেতে বইটি অবশ্যই শেষ করতে হবে।আমার মনে হয় এই উপন্যাসটি হুমায়ূন আহমেদ স্যারের অন্যতম সেরা উপন্যাস। তাই আর দেরি না করে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে বইটি ফ্রিতে ডাউনলোড করে পড়ে ফেলুন।

ছায়াবীথি PDF

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.