উপন্যাস

দশগ্রীব (উপন্যাস) PDF Download সিদ্দিক আহমেদ

বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় লেখক হল সিদ্দিক আহমেদ। অন্যান্য লেখক এর মত তিনিও খুব অল্প সময়ের মধ্যে পাঠকদের মন জয় করে নিয়েছেন। বাংলাদেশের সাহিত্য অঙ্গনে সিদ্দিক আহমেদ পরিচিত নাম। তার লেখা সব উপন্যাস সবার কাছে অনেক পরিচিত। তিনি তাঁর লেখনীর মাধ্যমে পাঠকদের কাছে অনেক বাস্তবতার চিত্র তুলে ধরেছেন। তার লেখনি বরাবরই বাস্তবতার কথা বলে। তাঁর রচিত সবগুলো উপন্যাসই অনেক বেশি জনপ্রিয়তা লাভ করেছে পাঠকদের কাছে। তেমনই এক উপন্যাস হলো “দশগ্রীব”।

“দশগ্রীব” সিদ্দিক আহমেদের একটি জনপ্রিয় সমকালীন উপন্যাস। এই উপন্যাসটি কে কেউ কেউ ক্ষমতা, রাজনীতি আর ধর্মের প্রকৃত উপন্যাসিক উপখ্যান হিসেবেও আখ্যায়িত করেছেন। বইটি প্রকাশ করেছে বাতিঘর প্রকাশনী। এই বইটি প্রথম প্রকাশিত হয় 2019 সালের ফেব্রুয়ারি মাসে। বইটি মূলত আর্কিওলজিক্যাল থ্রিলার জনারে লেখা। বইটিতে মোট পৃষ্ঠা সংখ্যা রয়েছে 400 টি। বর্তমান বাজারে বইটির মুদ্রিত মূল্য 314 টাকা।

কাহিনী সংক্ষেপ

উপন্যাসটি মূলত কয়েকটি বিষয়বস্তু নিয়ে লিখিত। উপন্যাসটির মধ্যে আমরা ক্ষমতা, রাজনীতি ও ধর্ম এই তিনটি বিষয় লক্ষ্য করতে পারব। গল্পের শুরুটা অনেক জমজমাট ও রহস্যময় ভাবেই শুরু হয়েছে। যার কারণে পাঠকরা বেশ মনোযোগ সহকারে এই বইটি পড়বে বলে আমি মনে করি। উপন্যাসটিতে আমরা একসাথে ইতিহাস, ফিকশন ও আদ্ভেঞ্চার সবকিছুরই স্বাদ গ্রহণ করতে পারব।

উয়ারী বটেশ্বরে খননকার্যের সময় বহু প্রাচীন একটি তামার বাক্স আবিষ্কার করা হয়। সে বাক্সের মধ্যে পাওয়া যায় মৌর্য সম্রাট অশোক এর আমলের এক পুরনো বইয়ের খন্ড। সেই বইটা কে কেন্দ্র করে খুন হয় বিখ্যাত আর্কিওলজিস্ট প্রফেসর কামরুল শরীফ। তার সাথে সাথে হারিয়ে যায় বিখ্যাত প্রাচীন বইটাও।

প্রফেসর কামরুল শরীফের মৃত্যু নিয়ে তদন্ত শুরু করে তার প্রিয় ছাত্র সাংবাদিক রাশাদ ও ছাত্রী জয়িতা। তারা তাদের স্যারের এই মৃত্যু মেনে নিতে পারে না। তারা নিজ উদ্যোগেই এই কেসের তদন্ত শুরু করে। তদন্ত করতে করতে তাদের সামনে চলে আসে সেই হারিয়ে যাওয়া প্রাচীন বই দশগ্রীব এর এক খন্ড পাতা। ওই পাতাতে দেওয়া আছে একটা ম্যাপ যেখানে হিন্দু মিথোলজি রামায়নে বর্ণিত রাবণের ব্রম্ভাস্ত্র চন্দ্রহাস এর সন্ধান।

এই ঘটনা জানার পরে রাশাদ ও জয়িতার পেছনে ঢাকার কুখ্যাত ভাড়াটে খুনি জহির বাবু। হারিয়ে যাওয়া পাতাটি উদ্ধার করেছিল তার একমাত্র লক্ষ্য। চন্দ্রহাস এর খোঁজে নেমেছে গুপ্তসংঘ। গুপ্তসংঘ তাদের পরিকল্পনা সাজিয়েছে সম্রাট অশোকের সময়েরও আগে থেকে।

রহস্যের তদন্তের জন্য রাশাদ ও জয়িতা পাড়ি দেয় রাবণের দেশ শ্রীলঙ্কাতে। ওদের সাথে সেখানে বিভাশ,সঞ্চার নিসর্গও যোগ দিয়েছে। চন্দ্রহাস হাতে পাওয়ার জন্য নবসংঘ মানুষকে খুন করতেও তাদের বাঁধছে না। সেখানে গিয়ে রাশাদ ও জয়িতা অনেকটাই বিভ্রান্তির মধ্যে পড়ে যাচ্ছিল। তাদের সামনে একে একে এতগুলো রহস্যের জট খুলছিল যে তারা অনেকটাই বিভ্রান্ত হয়ে পড়েছিল। এই কেসের তদন্তের জন্য লাস্ট পর্যন্ত অভিযাত্রীদের অনেকে অনেক বিপদের সম্মুখীন হয়।

আমি এখানে উপন্যাসটির সংক্ষিপ্ত কিছু অংশ তুলে ধরলাম। গল্পের আসল কাহিনীটা জানতে গেলে বইটা আপনাকে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়তে হবে। ইতিহাস আশ্রিত এই উপন্যাসটি তরুণ পাঠকদের মন খুব সহজে জয় করে নেবে বলে আশা করা যায়। অসাধারণ এই বইটি যারা এখনো সংগ্রহ করেননি তারা আর দেরি না করে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে বইটি ডাউনলোড করে ফেলুন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.