শিশু-কিশোর

হলুদ পরী PDF Download হুমায়ূন আহমেদ

বাংলাদেশের বিখ্যাত কথাসাহিত্যিক ও ঔপন্যাসিক হুমায়ুন আহমেদ রচিত ছোটদের অসাধারণ একটি বই হল ‘ হলুদ পরী ‘। হুমায়ুন আহমেদের ছোটদের রচনাগুলোর মধ্যে এটি একটি অন্যতম বইটি। বইটি প্রকাশিত হয়েছে ২০০৯ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে। বইটির প্রকাশনা করেছেন বাংলাপ্রকাশ প্রকাশনী। বইটি শক্তমলাটে ছাপা হয়েছে। বইটির মোট পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ১৬ টি। বইটির বাংলাদেশী মুদ্রিত মূল্যঃ ১০০ টাকা। বইটির অনলাইন পিডিএফ সাইজ ০৩ এমবি।

বইটি মূলত একটি শিশু-কিশোরদের উপন্যাস। বইটিতে পরীদের নিয়ে একটি মজার গল্প রয়েছে। ছোটদের জন্য এটি একটি অসাধারণ বই। ছোট্ট বইপ্রেমি বন্ধুরা বইটি পড়তে চাইলে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ফ্রী পিডিএফ ডাউনলোড করে পড়তে পারবেন। শিশু-কিশোর যারা এখনো বইটি পড়েনি তারা তাড়াতাড়ি আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে চমৎকার এই বইটি আজই পড়ে নিন।

হলুদ পরী গল্পের মূল কাহিনী

সাহিত্য অঙ্গনে হুমায়ুন আহমেদের বিচরণ সব জায়গায়। ছোট থেকে বড়ো তিনি সবার জন্য অসাধারণ সব বি রচনা করে গেছেন। ছোটদের জন্য তিনি রচনা করেছেন মজার মজার সব বই। তেমনি একটা মজার বই হল ‘ হলুদ পরী ‘। বইটির কেন্দ্রীয় চরিত্র হল সুমি নামের একটি ছোট মেয়ে। যার সামনে জন্মদিন এবং সে পাঁচ বছরে পা দিবে। সে তার বাবা, মা আর মামার সাথে থাকে। তার বাবা মামুন সাহেব আর তার মায়ের মধ্যে প্রায়ই সময় ঝগড়া লেগেই থাকে। ছোট- খাটো বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া লেগে যায়। সুমি তাদের ঝগড়া মোটেই পছন্দ করে না। তাদের ঝগড়া লাগলেই সুমির মন খারাপ হয়ে যায়।

সুমির জন্মদিন উপলক্ষে তার বাবা কেকের সাথে চারটা মোমবাতি নিয়ে এসেছে। কিন্তু সুমির পঞ্চম তম জন্মদিন তাই পাঁচটা মোমবাতি প্রয়োজন। তাই তার মা আর বাবা ঝগড়া লেগে গেছে। সুমি আসায় তারা ঝগড়া থামিয়ে দিয়ে হাসি হাসি মুখ করে। সুমিকে তার বাবা জিজ্ঞেস করলো জন্মদিনে সুমি কি উপহার চায়। সুমি বললো সে একটা হলুদ পরী চায়। আর তার মায়ের কাছ থেকে সে চকলেট উপহার চায়। তার বাবা তাকে বলে যে তাকে হলুদ পরী এনে দিবে।

সুমি অন্য ঘরে যেয়ে দেখে তার পল্টু মামা রঙিন কাগজ দিয়ে ঘর সাজাচ্ছে। সুমির তা দেখে খুব ভালো লাগলো আবার মন খারাপও হল। সকাল থেকে সবাই টেলিফোনে সুমিকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছে। সুমির এইসব শুনে খুব আনন্দ হচ্ছে। বিকালে সব আত্মীয় স্বজনকে দাওয়াত করা হয়েছে জন্মদিন উপলক্ষে। সবাই এসে কেক কাটার পর উপহার খোলা শুরু হল। বাবা তার জন্য নিয়ে এসেছে রিমোট কন্ট্রোল কার। সে কোথায় হলুদ পরী খুঁজে পায়নি। তাই দেখে সুমির খুব রাগ হল এবং মন খারাপ হল। তার রিমোট কন্ট্রোল কার চায়না, তার হলুদ পরী চায়। সে উপহারের প্যাকেট ফেলে দিয়ে চলে যায়। জন্মদিনের অনুষ্ঠান ভেস্তে যায়।

রাতে সুমি না খেয়ে শুয়ে পড়ে। তার বাবা মা অনেক ডাকাডাকি করার পরও সে ভাত খায়না। এরপর তার পল্টু মামা এসে তাকে খেতে ডাকে কিন্তু কিছুতেই সে খাবেনা জানিয়ে দেয়। তার মা সুমির ঘরে খাবার রেখে চলে যায় আর সুমি কাঁদতে কাঁদতে ঘুমিয়ে পড়ে। মাঝরাতে কারো হাসির শব্দে তার ঘুম ভেঙে যায়। সে উঠে তাকিয়ে দেখে হলুদ রঙের দুটো জমজ পরী তার ঘরে নাচানাচি করছে। এরপর সুমি সহ তারা তিনজনে মিলে অনেক মজা করে। এরপর পরীরা আকাশে চলে যায় আর কখনো ফিরে আসে না।

হলুদ পরী PDF

Rokomari Link

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.