উপন্যাস

কুহেলিকা PDF Download কাজী নজরুল ইসলাম

কুহেলিকা কাজী নজরুল ইসলাম এর একটি বিখ্যাত উপন্যাস। এটি মূলত একটি রাজনৈতিক উপন্যাস। উপন্যাসটিতে তৎকালীন স্বদেশী আন্দোলন কে দেখানো হয়েছে এবং সেই সময়কার সামাজিক-রাজনৈতিক চিত্র প্রকাশ পেয়েছে। উপন্যাসের প্রধান চরিত্র হলো জাহাঙ্গীর একজন মুসলিম বিপ্লবী নেতা।

জাহাঙ্গীর ছাড়াও আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র হলো তরুণ কবি হারুন যে প্রথম তার কবিতায় বলে যে নারী কুহেলিকা। যখন সবাই একসাথে আড্ডা দেয় তখন অনেকেই নারী সম্পর্কে অনেক মন্তব্য করে। আশরাফ নতুন বিয়ে করেছে সে বলে যে নারী অহমিকা। আবার বলে যে নারী “নায়িকা”।

গল্পের প্রধান নায়ক জাহাঙ্গীর নারীকে শ্রদ্ধাও করেনা আবার পূজাও করেনা। জাহাঙ্গীরের জন্ম কুমিল্লায় তবে সে মানুষ হয়েছে কলকাতায়। তার বাবা একজন বিখ্যাত জমিদার ছিলেন মারা যাওয়ার পর তার মা তাদের জমিদারি হামলায়। তার জীবনের সবকিছু ঠিক ছিল কিন্তু যেদিন বাস্তবতার কঠিন সত্য সে জানতে পারে যে তার মা একজন বাইজি ছিল এবং তার পিতা ছিল চিরকুমার।

সে তাদের পিতা মাতার অবৈধ সন্তান। এরপর থেকে সে জীবনের অর্থ খুঁজে শুরু করে এবং জীবনকে আলাদা ভাবে দেখতে শুরু করে।এ কারণে সে খুবই সাদামাটা জীবন যাপন করতে থাকে এবং একজন জমিদারের পুত্র হওয়ার দরুন তার ভেতরে জমিদারি বিলাসিতার একরত্তিও খুঁজে পাওয়া যায় না।

হারুন, মোবারক, দেওয়ানজী, আশরাফ তাহমিনা, জয়িতা উপন্যাসের অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র সমূহ। উপন্যাসের নামকরণ যদিও কুহেলিকা দেওয়া হয়েছে এবং এর অর্থ হচ্ছে কুয়াশা যা দ্বারা নারী চরিত্র কে বোঝানো হয়েছে কিন্তু উপন্যাসের বেশিরভাগ অংশ জুড়ে স্বদেশী আন্দোলন কে তুলে ধরা হয়েছে।

সে সময় ইংরেজরা কিভাবে বাংলাদেশকে তাদের নিজ প্রয়োজনে ব্যবহার করত এবং বাঙ্গালীদের উপরে জাতিগত, শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন করে তার একটি খণ্ড চিত্র পাওয়া যায় এই উপন্যাসটিতে। সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা এই উপন্যাসের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। হিন্দু-মুসলিম এর মধ্যে চলমান দাঙ্গা ও পারস্পরিক ঘৃণার চিত্র পাওয়া যায় এই উপন্যাসে।

জাহাঙ্গীর চরিত্রটির মধ্যে একটি সংগ্রামী স্বাধীনচেতা যুবককে পাওয়া যায় মাতৃভূমিকে ভিনদেশিদের শাসন থেকে মুক্ত করতে চায় মজার ছলে বন্ধুরা তাকে উনঝুলুন বলে ডাকে যার অর্থ হলো এলোমেলো। জাহাঙ্গীর চরিত্রের মধ্য দিয়ে সেই সময়কার সংগ্রামী যুবকদের চিন্তা-ভাবনা ও চেতনা প্রকাশ পেয়েছে এবং অবশেষে উপন্যাসের শেষ দিকে জাহাঙ্গীর স্বীকার করে নিয়েছে নারী আসলেও কুহেলিকা।

কুয়াশার মতো ঝাপসা যাকে দেখা যায় কিন্তু বোঝা যায় না। এই উপন্যাসটি নজরুলের একটি বিখ্যাত এবং কালজয়ী উপন্যাস। দেশমাতৃকার প্রতি অপরিসীম প্রেম নৈতিকতা এবং সংগ্রামী চেতনার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত উপন্যাসটি। তাই প্রতিটি পাঠকের উচিত এই উপন্যাসটি অধ্যায়ন করা।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *