উপন্যাস

পুফি PDF Download হুমায়ূন আহমেদ

বাংলাদেশের জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ রচিত ‘পুফি’ একটি অসাধারণ উপন্যাস। এটি হুমায়ূন আহমেদের মিসির আলি চরিত্র নিয়ে লেখা একটি উপন্যাস। বইটি প্রকাশিত হয়েছে ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে। বইটির প্রকাশক অন্যন্যা প্রকাশনী। বইটির মোট পৃষ্ঠা সংখ্যা ১০৩ টি। বইটির বাংলাদেশী মূল্যঃ ১৭৫ টাকা।

হুমায়ূন আহমেদ রচিত ‘পুফি’ মূলত একটি সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার ধরণের উপন্যাস। যেটি পড়লে পাঠককে চিন্তার জগতে নিয়ে যাবে। অসাধারণ থ্রিলার এই বইটি আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ফ্রি পিডিএফ ডাউনলোড করে পড়তে পারবেন। যারা বইটি এখনো পড়েননি তারা তাড়াতাড়ি আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে বইটি আজই পড়ে ফেলুন।

পুফি উপন্যাসের মূল কাহিনী

জোয়ার্দার সাহেব ও তার বন্ধু জামাল ছোটবেলায় এক কুকুরের কামড় খান। জোয়ার্দারকে ১৪ টা জলাতঙ্কের টিকা দেন তার বাবা, কিন্তু অর্থের অভাবে জামালের বাবা টীকা দিতে পারেননি। যার ফলশ্রুতিতে জামাল মারা যায়। এই ঘটনার পর থেকে জোয়ার্দার সাহেব পশু পাখি একদমই সহ্য করতে পারেন না।

জোয়ার্দারের সাথে শায়লার বিয়ে হওয়ার কথা ছিল কিন্তু তা হয় না। কোনো এক অতীত ঘটনাকে কেন্দ্র করে তার মামা- চাচারা বিয়ে ভেঙ্গে দেন। এর বেশ কয়েক বছর পর জোয়ার্দার সাহেবের মেয়ের জন্মদিনে তার মামা একটি বিড়াল উপহার দেয়। জোয়ার্দার সাহেবের মেয়ের নাম আনিকা। যেই বিড়ালটি উপহার হিসেবে পায় সেটি দেখতে কুচকুচে কালো। আনিকা বিড়ালটির নাম দেয় পুফি।

এই পুফি নামক বিড়ালটার বিশেষ ভূমিকা রয়েছে বইয়ে। পুফি আসার পর থেকে ঘটতে থাকে নানা রকম ঘটনা। পুফি যখন বাড়িতে থাকে না তখনও জোয়ার্দার সাহেব পুফির মতো অবিকল একটি বিড়াল দেখতে পান। যখন বাড়িতে কেউ থাকে না তখন তার বন্ধু জামাল এসে খেলাধুলা করে। পুফির মতো অবিকল যে বিড়ালটা ঘুরে বেড়ায় তার নাম দেন কুফি। এদের আগমনের পর থেকে অদ্ভুত সব ঘটনা ঘটতে থাকে। যার ফলে তার স্ত্রীর বাক বিতন্ডা শুরু হয়।

এরপর জোয়ার্দার সাহেব বিভ্রান্ত হয়ে নিজেকে সাইকো মনে করে ডাক্তারের শরণাপন্ন হন। ডাক্তারের কাছে যেয়ে দেখেন শায়লা নামের সেই মেয়েটি সাইক্রিয়াস্ট্রিট। শায়লার পরামর্শ দেন কিছু দিন আগে মারা যাওয়া বন্ধু ও বিড়ালের ছবি তুলতে বলেন। তিনি ক্যামেরায় মৃত মানুষের ছবি তুলতে সক্ষম হন। তবে ছবিগুলো দেখা যায় আয়নার প্রতিচ্ছবির মতো উলটো। তিনি ছবি গুলো দেখে নিজেই মিসির আলির শরণাপন্ন হন। তার সামনে আসে বিভিন্ন ধরণের অদ্ভুত ঘটনা। শায়লা তার অফিস থেকে খোঁজ নিয়ে জোয়ার্দার সাহেবের বাসায় গিয়ে জানতে পারেন তিনি অবিবাহিত ।

জোয়ার্দার সাহেবের বাসায় গিয়ে দেখতে পায় তার একটি বিড়াল আছে। তার বন্ধু জামাল বেচে আছেন এবং তার বাসায় আছেন। কিন্তু বাস্তবতায় জোয়ার্দার সাহেব বিবাহিত এবং তার একটি আনিকা নামের কন্যা সন্তান রয়েছে। যেখানে তার বন্ধু জামাল মৃত। এই গল্প আমরা দেখতে পায় পুফি একটি মেটাফরিক বিড়াল যে জীবিত থাকতে এক রকম আর মারা গেলে আরেক রকম। যেখান থেকে মনে হয় বাস্তব জীবন আর মৃত্যু পরবর্তী জীবনকেও বাস্তব বলে মনে হয়। অসাধারণ এই থ্রিলার বইটি পাঠকদের জন্য অনেক রোমাঞ্চকর উপন্যাস হবে।

পুফি PDF

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.