উপন্যাস

রূপা PDF Download হুমায়ূন আহমেদ

আপনারা যদি হুমায়ূন আহমেদ স্যারের রুপা বইটি খুজে থাকেন তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটে পেয়ে যাবেন। আমাদের ওয়েবসাইটে হুমায়ূন আহমেদ স্যারের রুপা বইটির পিডিএফ ফাইল দিয়ে দেওয়া আছে। আপনি যদি বইটি পড়তে আগ্রহ বোধ করেন তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের নিচের দিকে চলে যান এবং সেখান থেকে বইটি ডাউনলোড করে নিন। আমাদের ওয়েবসাইট থেকে আপনারা খুব সহজেই হুমায়ূন আহমেদ স্যারের অন্যান্য বইয়ের পাশাপাশি রুপা বইটির পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন বিনামূল্যে।

হুমায়ূন আহমেদ স্যারের রুপা বইটির প্রকাশনা সংস্থা হল অন্বেষা। এ বইটিতে পৃষ্ঠা রয়েছে 128 টি। বর্তমান বাজারে এই বইটির মুদ্রিত মূল্য দুই শত টাকা। সমকালীন উপন্যাসটি আপনাদের ভালো লাগবে এবং রোমান্টিকতা খুঁজে পাবেন।

রুপা কাহিনী সংক্ষেপ

উপন্যাসের শুরুতেই আমরা যে বিষয়টি লক্ষ্য করে সেটি হল রুপা অসম্ভব সুন্দরী একজন মেয়ে। তাঁর বাবা ছিলেন একজন বেসরকারি কলেজের শিক্ষক। তিনি এখন রিটায়ার করে বাড়িতে অবস্থান করছেন। রুপার চোখে তার বাবা একজন প্রেডিক্টেবল মানুষ এবং যেকোনো বিষয়ে খুব দ্রুত আগ্রহ যেমন দেখান তো এমনি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। রুপার মা অনেক আগে থেকেই এই পরিবার ছেড়ে চলে গেছেন। তবে রুপার বাবা হারুনুর রশিদ এখনো রূপার মাকে প্রচন্ড ভালোবাসেন।

একদিন ঝড় বৃষ্টির রাতে হঠাৎ করেই তাদের বাড়িতে রাশেদ নামে একজন লোক চলে আসে। রাশেদ নিশ্চিতভাবে ভুল করে এই বাড়িতে চলে আসে। রাশেদ বিদেশের একটি ইউনিভার্সিটির অংকের শিক্ষক। তবে এত রাত্রে একজন আগন্তুককে রুপা খুব সুন্দর ভাবে আত্মীয় আপ্যায়ন করে থাকে। তিনি রাশেদ সাহেবকে ঘুমানোর কথা বললে তিনি এই বাড়িতে থাকতে দ্বিধাবোধ করেন এবং সেই রাতেই বেরিয়ে চলে যান। কিন্তু রাশেদ সাহেবের শারীরিক সমস্যা থাকার কারণে তিনি বৃষ্টির পানিতে অনেক অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং একটি চায়ের দোকানে আশ্রয় নেন। পরবর্তীতে লোক মাধ্যমে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন।

হাসপাতালে ডাক্তার তাকে ঠিকানা জিজ্ঞাসা করলে তিনি আবছাভাবে রুপার বাড়ির ঠিকানা দিতে পারেন। রুপার বাড়ির লোকজন তাকে এগিয়ে নিয়ে আসে রুপার বাড়িতে। তবে রাসেল সাহেব কি জন্য দেশে এসেছেন সে বিষয়ে একটি সাসপেন্স রয়েছে। আমি এই বইটা পড়ে যতোটুকু বুঝতে পেরেছি প্রায় প্রত্যেকটি চরিত্রের মধ্যে কিছুটা ঘোর ঘোর ব্যাপার আছে। তাছাড়া রুপার মায়ের বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার কারণ কি তা সম্পর্কে জানতে হলে আপনাকে পুরো বইটি পড়তে হবে।

রুপার বাড়ির কাজের মেয়ে একটি চমৎকার চরিত্র। এই চরিত্র সাথে রুপার বেশ কিছু গোপনীয় বিষয় রয়েছে এবং সে বিষয়গুলো একজন পাঠক খুব সহজে বুঝতে পারবেন না। তবে আপনার অন্তর্ভেদী মন যদি সে বিষয়গুলো জানতে চান তাহলে নিজের মত করে সাজিয়ে নেবেন। রুপা বইটিতে আর একটি সক্রিয় চরিত্র হলো রুপার বাবার বন্ধু সুলতান সাহেব। তিনি এই বইটিতে কাহিনী গুলো খুব সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করেছেন।

তবে হুমায়ূন আহমেদ স্যার যেমন নারী চরিত্রগুলোকে অসম্ভব সুন্দরী করে তোলেন তেমনি তাদেরকে বুদ্ধিমত্তা প্রদান করেন। তিনি রুপা বইটিতে রুপার চেহারা এবং বুদ্ধিমত্তার কথাগুলো খুব সুন্দর ভাবে তার লেখনীর মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলেছেন। আশা করি বইটি পাঠ করলে আপনাদের ভালো লাগবে।

রূপা PDF

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.