উপন্যাস

শীতল শামিয়ানা PDF Download শংকর সূত্রধর

‘শংকর সূত্রধর’ নামটার সাথে একদম অপরিচিত। আমিও তাকে চিনিতাম না। মুক্তিযুদ্ধের উপর লেখা তার বই শীতল শামিয়ানা পড়েই পরিচিত হয়েছি। এমন অসাধারণ একটা উপন্যাস! সমকালীন এমন লেখা এখন সবার মাঝে দেখা যায় না। যা হোক বইটা না পড়ে থাকলে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে বইটির পিডিএফ পড়ে ফেলতে পারেন অনায়েসে।

কাহিনী সংক্ষেপ

এই উপন্যাসে সুশান এমন একটি চরিত্র, যে ছেলেবেলা থেকে অভাব-অনটনের মত বেদনাকাতর অভিজ্ঞতা নিয়ে বড় হয়েছে। কখনো পিতার অবর্তমানে না খেতে পেয়ে সে মৃত্যুমুখে পতিত হওয়ার মত অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে। সেই নির্মম অভিজ্ঞতার বর্ণনা পাষাণ হৃদয়কেও গলিয়ে দিতে সক্ষম। কখনো তার এবং তার পরিবারকে হতে হয়েছে উদ্বাস্তু হওয়ার উপক্রম।

জীবনের সাথে এত কঠিন সংগ্রাম করলেও সুশানের মাথার উপর সবসময় ছিল একটি নির্ভরতার আচ্ছাদন। সেটা হল তার মায়ের আচ্ছাদন। সবসময় তার মা তাকে সহযোগিতা করেছে বলে এত দুর্গম পথে সংগ্রাম করে যেতে পেরেছে সুশান। সুশানের মাথার উপর তার মায়ের এই আচ্ছাদনকেই লেখক শীতল শামিয়ানা বলে অভিহিত করেছেন।

এরপর এত অভাব-অনটনের মধ্যেও একসময় সুশানকে স্কুলে ভর্তি করা হয়। সেখানেও তৈরি হয় অনেক উত্থান-পতন। পড়াশোনায় কখনো সে ফেল করে, আবার কখনো ভালো ফলাফল করে সকলকে তাক লাগিয়ে দেয়। কখনো তার পড়ালেখা বন্ধ হয়ে যাবার উপক্রম হয়। কিন্তু ভাগ্য সবসময় সহায় হয় কিনা, এটাও জীবনের এক বৃহৎ জিজ্ঞাসা।

পড়াশোনা সবসময় সুশানের ভালো লাগতো না। সে পড়াশোনার মাঝ থেকে কখনো হারিয়ে যেত প্রাকৃতিক পরিবেশে। কখনো সে তার পূর্ব প্রজন্মের ইতিহাস খুঁজে বের করতে লালায়িত হয়ে ওঠে। সে তার এই জানার পিপাসা নিবৃত্ত করতে একা একা এসে সে শরণাপন্ন হয় তার আশালতা পিসি নামের এক শতবর্ষী প্রবীণার নিকটে। তার নিকট থেকে সে বহু কথা জানতে পারে তার পূর্বপ্রজন্মের ইতিহাস সম্পর্কে এবং চাক্ষুষ দর্শন করে পূর্বপ্রজন্মের ফেলে যাওয়া স্মৃতি চিহ্নগুলো।

সেই স্মৃতিতে একটি বড় স্থান দখল করে নিয়েছে অমৃতানন্দবাবু। এই ব্যক্তির সাথে সুশানের বাবার সম্পত্তি নিয়ে তৈরি হয় অসন্তোষ। কিন্তু অমৃতানন্দবাবু এই ব্যাপারে কপটতার আশ্রয় গ্রহণ করেছেন কিনা, সেটা আমি সঠিকভাবে নির্ণয় করতে পারিনি। তবে, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় নির্যাতিত হয়ে সমস্ত সহায় সম্পত্তি ফেলে নিরুদ্দেশ হয়ে যাবার মত ঘটনা, এমন অনেকের জীবনে ঘটেছে। তাদের জীবনের প্রতিচ্ছবির একটি খণ্ড চিত্র আশালতা পিসির স্মৃতিচারণের মধ্যে পাওয়া যেতে পারে।

সুশানের জীবনে পরিদিদি ও অর্চনা পিসিরও রয়েছে প্রভাব। অর্চনা পিসির নিকটে সুশানের হয়েছে পড়াশোনার হাতেখড়ি। পরিদিদিও তাকে ঢেলে দিয়েছে অপার স্নেহ। যদিও সে স্নেহের মধ্যে লুকায়িত ছিল কিছু জিজ্ঞাসা!

সুশানের বয়ানে তুলে ধরা হয়েছে পুরো উপন্যাসটি। এর পাশাপাশি উঠে এসেছে প্রাকৃতিক পরিবেশের হৃদয় নিংড়ানো বর্ণনা, যা পাঠকের হৃদয়কে করবে আন্দোলিত। এছাড়াও প্রকৃতি ও জীবন-মৃত্যু নিয়ে মানুষের মনের অনেক জটিল জিজ্ঞাসার সহজ উত্তরও উঠে এসেছে এই উপন্যাসের কাহিনীর পরতে পরতে।

এটা অসাধারণ ভিন্নধর্মী একটি উপন্যস।যেখানে স্নেহ-মায়-মমতার পাশাপাশি উঠে এসেছে এক জটিল জীবন জিজ্ঞাসার তত্ত্ব। বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে এই উপন্যাসটি প্রভাব বিস্তার করতে সক্ষম হবে কিনা, সেটা নির্ভুলভাবে বলা হয়ত সম্ভবপর নয়। তবে এটুকু বলতে পারি যে, এই উপন্যাসে জীবন সম্পর্কে যে তত্ত্ব উপস্থাপন করা হয়েছে, সেটা অবগত হয়ে আমরা নিজেকে সমৃদ্ধ করতে পারি।

সবশেষে বলবো, একটু বিশ্রাম নিতে সমকালীন কোনো নতুন বই পড়তে অবশশ্যই বইটি পড়তে পারেন।

Show More

One Comment

  1. ‘শীতল শামিয়ানা’ উপন্যাসের লেখক আমি। রিভিউ দাতার প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। বইটির পিডিএফ ডাউনলোড লিংক পাচ্ছি না। লিংক দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.