ছোট গল্প

স্ত্রীর পত্র PDF Download রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

স্ত্রীর পত্র বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গল্পগুচ্ছ হতে সংগৃহীত একটি ছোট গল্প। এটি মূলত একটি চিঠি যা একটি মেয়ে তার স্বামী কে লিখেছেন। একটি চিঠিতে যে পুরো একটি গল্প এত অসাধারণ করে বর্ণনা করা যায় তা কেবল মাত্র বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পক্ষেই সম্ভব। একটি নারীর যেন হৃদয়ের সমস্ত আবেগ আক্রোশ ও সারা জীবনের না বলা কথা গুলো উঠে এসেছে এই ছোটগল্পটি তে।

সমাজের করুন ও নিষ্ঠুর লৌহ শেকলে মোরা শাসন ব্যবস্থার মধ্যে একটি অসহায় নারী কি পরিমান কষ্ট ও যন্ত্রণায় দিন অতিবাহিত করতে পারে তা এই ছোটগল্পটি না পড়লে অনুধাবন করা অসম্ভব। রবি ঠাকুরের এই ছোটগল্পটি তে লেখক মেজ বউ চরিত্রটিকে এমনভাবে অঙ্কন করেছেন যেন নারীর হৃদয়ের সমস্ত আত্মকথা লেখক জানতেন। এতটাই প্রাণবন্ত ও জীবন্ত এই ছোটগল্পটি মনে হয় বাংলা সাহিত্যে এরূপ গল্প খুঁজে পাওয়া আর কখনোই সম্ভব নয়।

স্ত্রীর পত্র ছোটগল্প পিডিএফ ডাউনলোড রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

স্ত্রীর পত্র ছোট গল্পটিতে সমসাময়িক সময়ে কি পরিমান ধর্মীয় ও সামাজিক গোড়ামিতে পদপৃষ্ট হত একটি পরিবার কিংবা একটি সমাজ তার জ্বলন্ত নিদর্শন রয়েছে এই গল্পটিতে। এই গল্পটির প্রধান চরিত্র মেজ বইয়ের মাধ্যমে সমাজের ও পরিবারের যে গোঁড়ামি ও অসঙ্গতিগুলো লেখক দেখিয়েছেন তা সত্যিই দুঃখজনক ও সমাজের জন্য ক্ষতিকর। শুধুমাত্র ধর্ম ও সামাজিক কুসংস্কার বলিদান হয়ে কত জীবন নষ্ট হয়ে যায় অকালে তার স্বচিত্র অংকন করেছেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

মেজ বউ চরিত্রটির বুদ্ধিমতী রূপবতী। তার বর্ণনা করা অসঙ্গতিগুলো এতটাই নিখুঁত ও হৃদয় স্পর্শী এই গল্প না পড়লে কখনোই বোঝা যাবে না। এ গল্পটিতে মেজ বউ বিন্দু নামের একটি আশ্রয়হীন মেয়ের কথা বলেছে। বিন্দু নামের এই মাতৃহীন ও রূপহীন মেয়েটিকে মেজ বউ জগতের সমস্ত ভালোবাসা দিয়ে আগলে রেখেছিল। বিন্দুর প্রতি এমন ভালোবাসার জন্য কোন কথা শুনতে হয়নি মেজ বউ কে।

এমন রূপহীন কন্যাকে পৃথিবীর কোন পুরুষ বিবাহ করবে এমন কেউ ভাবতেই পারেনি। অবশেষে বিন্দুর বিয়ে হয় কিন্তু তার স্বামী ছিল পাগল। অনেক কাঠখড় পোড়ানোর পর এবং সে বিপদ থেকে বাঁচার চেষ্টা করার পরেও বাঁচতে পারেনি বিন্দু। অবশেষে বিন্দু চারপাশের এত অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে নিজের কাপড়ে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

বিন্দুর আত্মহত্যাতে সকলে বিন্দু কি দোষারোপ করতে থাকে। কিন্তু কী নিদারুণ কষ্ট সহ্য করতে না পেরে যে পৃথিবী ত্যাগ করেছে বিন্দুর মতো একটি অসহায় মেয়ে তা কেবল মেজবউ বুঝতে পেরেছিল। সে কারণেই সংসার ত্যাগ করে চিরকালের মত তীর্থে চলে গিয়েছিল সে।

বাংলা সাহিত্যপ্রেমী প্রতিটি পাঠক-পাঠিকার উচিত রবি ঠাকুরের ছোটগল্প স্ত্রীর পত্র’ পড়া। কেননা এরূপ অসাধারণ ছোটগল্প বাংলা সাহিত্যে অত্যন্ত বিরল ও ব্যতিক্রমধর্মী। অসাধারণ ছোটগল্পটি পাঠকদের সুবিধার্থে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে পিডিএফ ফাইল সংগ্রহ করেছি শুধুমাত্র আপনাদের জন্য। আপনারা চাইলে যখন তখন আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন রবি ঠাকুরের এই অসাধারণ ছোটগল্পটি।

স্ত্রীর পত্র PDF

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.