উপন্যাস

দ্য লস্ট সিম্বল PDF Download ড্যান ব্রাউন

‘দ্য লস্ট সিম্বল’ উপন্যাসটি ড্যান ব্রাউনের রচয়িত রবার্ট ল্যাংডন সিরিজের তৃতীয় বই। উপন্যাসটি প্রথম প্রকাশিত হয় ২০০৯ সালে ডাবলডে প্রকাশনী থেকে। এর আগের দুইটি বইয়ের কাহিনী ইউরোপের বিভিন্ন জায়গাকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠলেও এই উপন্যাসটি ওয়াশিংটন ডি.সি আমেরিকার রাজধানীর উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছে। এই বইটিও বিশ্বে অন্যতম সর্বাধিক বিক্রিত বইয়ের তালিকায় নিজের জায়গা করতে সক্ষম হয়েছে।

উপন্যাসটির পটভূমির মূলে রয়েছে আমেরিকার রাজধানী ওয়াশিংটন ডি.সি. এবং ফ্রিমেসন। রবার্ট ল্যাংডন সিরিজের প্রত্যেকটি বইয়েই ঔপন্যাসিক কোন না কোন গোপন সংস্থাকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন। যদিও ফ্রিমেসনারী কোন গোপন সংস্থা নয়, তবুও তাদের নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই। অনেকে ফ্রিমেসনদের নিয়ে অনেক গাল-গল্প রটালেও লেখক এই উপন্যাসে তা করেননি, যা অনেকটাই বাস্তব সম্মত।

The Lost Symbol PDF Bangla

আমেরিকার ইতিহাসের সাথে এই সংস্থাটির সম্পর্ক উপন্যাসটিতে ব্যক্ত হয়েছে। ফ্রিমেসনদের ব্যাখ্যা করতে গিয়ে লেখক বলেছেনঃ “They are not a secret society, rather a society with secrets.” উপন্যাসটির সূচনা হয় ল্যাংডনের ভোরবেলায় সুইমিংপুলে সাঁতার কাটার মধ্য দিয়ে। সাঁতার শেষ করে আসার পর সে এক বার্তা পায়। টেলিফোনের লাইনে এই ভোরবেলা বার্তার চিহ্ন দেখে বিরক্ত হলেও, যেমনই রবার্ট জানতে পারেন বার্তাটি এসেছে তার বন্ধু পিটার সলোমন এর কাছ থেকে সেই বিরক্তি হাওয়ায় মিলিয়ে যায়।

পিটারের এত ভোরে রবার্টকে বার্তা দিতে হয়েছে বিশেষ এক কারণে। কারণটি হলো পিটার চায় ওয়াশিংটন ডি.সিতে স্মিথসোনিয়ান ইন্সটিটিউটের এক অনুষ্ঠানে রবার্ট বক্তৃতা দেক, বক্তৃতার বিষয় হলো ফ্রিমেসন। বার্তার শেষে একটি ফোন নাম্বার দিয়ে দেয়া হয় এবং সেখানে কথা বললে রবার্টের ভ্রমণের সব ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে বলে বার্তায় জানানো হয়।

সেদিন বিকালেই রবার্ট ওয়াশিংটনের উদ্দ্যেশে রওনা দেয় এবং অনুষ্ঠানের ঠিক আগ মুহুর্তে নির্দিষ্টস্থানে পৌঁছে গেলেও সেখানে কোন অনুষ্ঠান নেই বলে জানতে পারে রবার্ট। কিছুক্ষণ পরেই এক বিকট চিৎকার শুনতে পায় রবার্ট। চিৎকারের উৎপত্তি স্থলে গিয়ে রবার্ট দেখতে পায় একটি কাটা হাত। হাতের দিকে তাকিয়ে খুব সহজেই রবার্ট বুঝতে পারে হাতটি আর কারো নয় বরং তার বন্ধু পিটারের।

তারপরেই রবার্টের কাছে আসে একটি ফোন কল, ওপাশের কন্ঠটির সাথে কথা বলে রবার্ট বুঝতে পারে সে এক ভয়াবহ ফাঁদে পা দিয়েছে। ভোরবেলা রবার্ট যার সাথে পিটারের সহকারী ভেবে কথা বলেছিলো সেই আসলে পিটারকে অপহরণ করেছিল। তারপরের মুহুর্তেই রবার্টের চারপাশে অবস্থান নেয় নিরাপত্তাকর্মীরা তারা হাতটিকে ঘিরে রাখে, তার কিছুক্ষণ পরেই সি.আই.এ এর উর্ধতন কর্মকর্তা সাটো চলে আসেন ঘটনাস্থলে।

রবার্ট খুবই উদ্বিগ্ন হয়ে ওঠেন এসব অবস্থা দেখে শুরু হয় রবার্টের জীবনের আরেকটি শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান। উপন্যাসটির এক পর্যায়ে বেরিয়ে আসে জর্জ ওয়াশিংটনের একজন ফ্রিমেসন হিসেবে জীবনযাত্রার গল্প। উপন্যাসটির অন্যতম প্রধান চরিত্র ক্যাথরিন সলোমন ও মাল’আখ নামক এক ব্যক্তির পরিচয় ও পাওয়া যাবে উপন্যাসটিতে।

Download Novel The Lost Symbol PDF

আর সেজন্য উপন্যাসটি পাঠ করতে হবে পাঠককে। ড্যান ব্রাউনের উপস্থাপনা সম্পর্কে নতুন করে কিছু বলার দরকার হয় না, সব উপন্যাসের পটভূমিতেই তিনি যুক্ত করেন কোন না কোন গুপ্ত সংস্থা আর রবার্ট ল্যাংডনের দ্বারা যেভাবে সবকিছু ব্যাখ্যা করেন তা অনবদ্য। তার প্রত্যেকটি লেখার মূল আকর্ষণ সংকেত, গোপন দলিল, রোমাঞ্চ সবকিছুর দেখা মিলবে বইটিতে।

আগের দুইটি বইতে রবার্টকে ঠান্ডা মাথায় সব কিছুর ব্যাখ্যা করতে দেখা গেলেও এই উপন্যাসে রবার্ট সবসময়ই একটু ভীত, ভ্রান্ত। যা গল্পে নতুন মাত্রা যোগ করেছে, কেননা কাছের কোন মানুষ বিপদে পড়লে যে কেউই কিছুটা ভীতির সম্মুখীন হয়। আর অবস্থার মধ্যেই রবার্ট রহস্যজট খোলার চেষ্টা করতে থাকে। উপন্যাসটি যে এঞ্জেলস অ্যান্ড ডিমনস ও দ্য দা ভিঞ্চি কোডের যোগ্য উত্তরসুরী তাতে কোন সন্দেহ নেই।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.