উপন্যাস

মানবজনম PDF Download সাদাত হোসাইন

মানবজনম’ উপন্যাসটির রচয়িতা হলেন সাদাত হোসাইন। বর্তমান সময়ের অন্যতম প্রতিভাবান লেখক যত উপন্যাস প্রকাশ করেছেন তার মধ্যে এই উপন্যাসটি বিশেষভাবে জনপ্রিয়। এমন কী যতই সময় গড়াচ্ছে এই উপন্যাসের প্রতি পাঠকের আগ্রহ বাড়ছে।
 
সাদাত হোসাইন এর লেখায় মানুষের সাথে মানুষের সম্পর্ক, মানুষের জীবনের দৈনিক গল্পগুলো যেভাবে ফুটে উঠে তা সত্যিই প্রশংসনীয়, আর এইসব সাদামাটা ভাবের সাথে লেখক সংমিশ্রণ ঘটিয়ে থাকেন রোমাঞ্চের। যার ফলে একবার পড়তে বসলে সহজে লেখকের কোন বই ছেড়ে উঠে আসা যায় না। লেখকের অন্যান্য বইয়ের মত এটিও দীর্ঘকায়।
 
কিন্তু একবার পড়তে আরম্ভ করলে ৫২৮ পৃষ্ঠার এই বইটি শেষ না করে উঠতে ইচ্ছা করে না। উপন্যাসটি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিলো ২০১৭ সালে ‘ভাষাচিত্র প্রকাশনী’ থেকে। উপন্যাসটির পটভূমিতে রয়েছে বেশ কয়েকটি চরিত্র। লেখক প্রত্যেকটি চরিত্রের ক্ষেত্রেই গুরুত্ব দিয়ে উপন্যাসটি রচনা করেছেন। উপন্যাসটির শুরু হয় আষাঢ় মাসের বৃষ্টির মধ্য দিয়ে।
 
গভীর রাতে আষাঢ় মাসে প্রচন্ড বৃষ্টি হচ্ছে, হোসেনাবাদ গ্রামের সকলে কম্বল মুড়ি দিয়ে আরাম করে ঘুমাচ্ছে। কিন্তু দুইজনের ঘুম নেই, তারা এই প্রতিকূল পরিবেশেও হোসেনাবাদ থেকে ফতেহপুর এর উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছে। তারা হলো আব্দুল ফকির আর তার সহযোগী জুলফিকার।
 
আব্দুল ফকিরের পায়ের সামনের আঙ্গুলগুলো না থাকায় তার হাটতে অসুবিধা হচ্ছে কিন্তু তাকে যেতেই হবে ফতেহপুর, তৈয়ব খা যে তাকে তলব করেছেন না যেয়ে উপায় নেই। তৈয়ব আলী খা হলেন ফতেহপুরের একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি, তাকে সবাই একনামে চেনে ও সমীহ করে চলে। তৈয়ব খার নাম শুনলে ফতেহপুর তো বটেই আশেপাশের গ্রামের মানুষের ও মনে ভয় সঞ্চার হয়। তৈয়ব খার মোট তিনটি সন্তান, দুই ছেলে, এক মেয়ে।
 
দুই ছেলে দবির খা, কবির খা ও মেয়ে কোহিনুর। দবির খা হলো ভবঘুরে, কোন সময় তার দেখা পাওয়া যাবে আর কখন যাবে না তার ঠিক নাই। আর খবির খা হলেন ফতেহপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, বয়স তার ৬০ এর মত। এই বয়সেও খবির তার পিতা তৈয়ব আলীকে প্রচন্ড ভয় পায়। কোহিনুর প্রায় ২৫ বছর ধরে গ্রামে আসে না এবং কারো সাথেই তার যোগাযোগ নাই।
 
কিন্তু এর মাঝে একদিন কোহিনুরের ছেলে নয়ন গ্রামে আসে এবং সাপের ছোবল খেলে আব্দুল ফকিরের ডাক পরে। এরপর থেকেই উপন্যাসটি ধীরে ধীরে খুব উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে ওঠে। উপন্যাসটি কখন কোন দিকে মোড় নিবে তা বোঝা কষ্টসাধ্য হয়ে ওঠে।
 
উপন্যাসটি বড় হলেও লেখকের উপস্থাপনের ধরণ ও পদে পদে রোমাঞ্চ এবং ঘটনার মোড় পালটে নতুন এক ঘটনার অবতারণা উপন্যাসটিকে অসাধারণ করে তুলেছে। বাস্তব জীবনের প্রতিচ্ছবি উপন্যাসটিতে জায়গা পেয়েছে যা এটিকে আরও উপভোগ্য করে তুলেছে।
 
 
 

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.