উপন্যাস

ওমের্তা PDF Download মারিও পুজো

ওমের্তা উপন্যাসটির রচয়িতা হলেন মার্কিন-ইতালিয় লেখক মারিও পুজো। উপন্যাসটি বই আকারে প্রথম প্রকাশিত হয় ২০০০ সালে ‘ব্যালেন্টাইন বুক’ প্রকাশনী থেকে। পুজোর অন্যান্য বইয়ের মত এই বইটিও জনপ্রিয়তা লাভ করলে তা বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়।

আমাদের দেশের বাজারে বইটির অনুবাদ প্রকাশ করেছে অন্বেষা প্রকাশনী এবং অনুবাদ সম্পাদনা করেছেন সাদেকুল আহসান কল্লোল। ওমের্তার প্রকাশনা পুজো দেখে যেতে পারেননি। মৃত্যুর আগে তিনি উপন্যাসটির রচনা তিনি শেষ করে গেলে, তার মৃত্যুর পর তা প্রকাশিত হয়।

উপন্যাসটির প্রেক্ষাপট গড়ে উঠেছে ডন এপ্রিল এর দত্তক ভাগ্নে আস্তরে ভিয়োলাকে কেন্দ্র করে। উপন্যাসটির গল্প শুরু হয় পুজোর পছন্দের স্থান ইতালির সিসিলিতে ডন ভিনসেনজো জেনোর মৃত্যুর মধ্য দিয়ে। মৃত্যু শয্যায় শায়িত অবস্থায় ডন জেনো তার পুত্র ভিয়োলার দ্বায়িত্বভার তুলে দেন, তারই পূর্বের এক অনুসারী ডন রেমন্ড এপ্রিলের হাতে।

ডন রেমন্ড হলেন নিউইয়র্কের একজন অন্যতম ক্ষমতাধর মাফিয়া। রেমন্ড বিপত্নীক এবং তিনি চান না তার সন্তানেরা তার মত এই অন্ধকার জগতের দিকে হাঁটুক, তাই তিনি সন্তানদের দূরে বোর্ডিং স্কুলে পাঠিয়ে দিয়েছেন এবং কদাচিৎ সন্তানদের সাথে দেখা করেন।

কালক্রমে রেমন্ডের সাথে আস্তোরে ভিয়োলার সখ্যতা গড়ে উঠে এবং ডন এপ্রিল ভিয়োলাকে নির্বাচিত করেন তার এই অন্ধকার জগতের পরবর্তী সময়ের কর্ণধার হিসেবে। যখন ভিয়োলার বয়স ১৬ বছর তখন সে ডন এপ্রিলের মেয়ে নিকোলের সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পরে যা এপ্রিলের মোটেও পছন্দ হয় না। তাই সে ভিয়োলা কে লন্ডনে যেয়ে তার পড়াশোনা চালিয়ে যেতে বলে এবং এই সম্পর্কের ইতি টানতে বলে।

ভিয়োলা ছিল ডন এপ্রিলের একান্ত ভক্ত, তাই সে কোন কাল ক্ষেপন না করে যত দ্রুত সম্ভব লন্ডনে চলে যায়। লন্ডনে যাওয়ার পর ভিয়োলার সাথে পরিচয় হয় মিস্টার প্রাইওর এর যিনি কিনা একজন ব্যাংকার এবং ডন রেমন্ডের একজন বন্ধু। লন্ডনে ভিয়োলার কাজ শেষ হলে সে সিসিলিতে চলে যায় এবং ডন বিয়াংকোর সাথে কাজ শুরু করে।

কিছুদিন পর ভিয়োলার প্রশিক্ষণ শেষ হলে ডন রেমন্ড তাকে নিউইয়র্কে ফেরত আসতে বলে। রেমন্ড তার সকল কালো ব্যবসা বন্ধ করে দিয়ে একটি ব্যাংক কিনে ফেলে এবং ভিয়োলাকে সেটা দেখা শোনার দ্বায়িত্বভার প্রদান করে। এর কিছুদিন পরেই ডন রেমন্ড আততায়ীর গুলিতে নিহত হন।

এরপর থেকেই উপন্যাসটির কাহিনী দ্রুতই পরিবর্তন হতে শুরু করে। কাহিনী হয়ে উঠে টানটান উত্তেজনাপূর্ণ। মারিও পুজোর অন্যান্য উপন্যাসের সাথে তুলনা করলে এই উপন্যাসটি কিছুটা ভিন্ন ধাচের কেননা, অন্যান্য উপন্যাসে অন্ধকার জগতে একটি পরিবার কীভাবে সাম্রাজ্য গড়ে তুললো, কীভাবে তা পরিচালনা করলো সেসব তুলে ধরলেও; এখানে লেখক তুলে ধরেছেন একজন প্রভাবশালী ডন কীভাবে অন্ধকার জগৎ থেকে বের হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসেন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.