উপন্যাস

শঙ্খরঙা জল PDF Download তানিয়া সুলতানা

বাংলাদেশের জনপ্রিয় একজন লেখিকা হল তানিয়া সুলতানা। তার জনপ্রিয় একটি উপন্যাস হলো “শঙ্খরঙা জল”। তার এই উপন্যাসের বিষয়বস্তু এতটাই আকর্ষণীয়, যে খুব তাড়াতাড়ি বাংলাদেশের পাঠকদের কাছে এই উপন্যাসটা জায়গা দখল করে নিয়েছে। এই লেখিকার লেখার ধরন অনেক ভালো। তার প্লট নির্বাচন ও সুন্দর লেখনীর উপস্থাপনী উপন্যাস কে উচ্চ মাত্রায় পৌঁছে দিয়েছে।

“শঙ্খরঙা জল”তানিয়া সুলতানার একটি সমকালীন উপন্যাস। উপন্যাসটি প্রকাশ করেছে বাতিঘর প্রকাশনী উপন্যাসটি প্রথম প্রকাশ কাল হলো 2017 সালের ফেব্রুয়ারি মাস। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন লেখিকা নিজেই। বইটিতে মোট পৃষ্ঠা সংখ্যা রয়েছে 172 টি। বর্তমান বাজারে বইটির মূল্য 120 টাকা। অসাধারণ উপন্যাসটি যারা এখনও সংগ্রহ করতে পারেননি তারা আর দেরি না করে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে বইটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করে পড়ে ফেলুন।

কাহিনী সংক্ষেপ

এই উপন্যাসের কাহিনীটা পুরোটাই জড়িয়ে আছে এক ধরনের মায়ায়। উপন্যাসটি পড়তে গিয়ে সবাই সুখ, দুঃখ, হাসি, কান্না, ভালোবাসা, ঘৃণা একসাথে সব কিছুই অনুভব করতে পারবেন। কোথাও গিয়ে খুব ইমোশনাল হয়ে পড়বেন আবার কোথাও চোখের কোনে এক ফোটা জল জমা হবে। এককথায় গল্পটা ইমোশনাল।

এবার গল্পের মূল কাহিনীতে আসা যাক। একটা বর্ষণমুখর দিনের ছোট্ট মেয়ে কোমল এর জন্ম। বাবা-মায়ের অনেক আদরের মেয়ে কোমল। বাবার আদর করে কোমলকে নাম দিয়েছিল কুমু। সেই থেকে কোমল, কুমু নামেই সবার কাছে পরিচিত। জীবনের সবথেকে সেরা মুহূর্ত গুলো কুমু পার করছিল তার মা বাবার সাথে।

কিন্তু হঠাৎ করেই তার সুখের দিন গুলো অন্ধকারে পরিণত হয়ে গেল। হঠাৎ করে কুমুর মা মারা গেলেন। মাতৃহারা হয়ে কুমু বাবার আদরে লালিত পালিত হতে লাগল। মা ছাড়া তার সবকিছুই শূন্য লাগতে লাগলো। মনে হচ্ছিল তার মাথার উপর থেকে একটা ছাদ চলে গেছে।

কুমু নীলসাগরীর তীরে সাজানো ছোট্ট পৃথিবী ছেড়ে পদার্পণ করে ভিন্ন এক জগতে। ভিন্ন জগতে পা দেয়ার পরে সে কি কি অবস্থার মুখোমুখি হতে হয় তারই এক গল্প হল “শঙ্খরঙা জল”। কুমু বড় হয় অনেক আদর স্নেহের মধ্যে দিয়ে। কখনোই সে বুঝতে পারেনি কষ্ট কি। কিন্তু তার মা মারা যাওয়ার পরে সে বুঝতে পারে জীবনে বেঁচে থাকাটা কতটা চ্যালেঞ্জিং।

উপন্যাসের কুমু বুঝতে পারে জীবন অতটা সহজ নয়। জীবনের অলিতে গলিতে কত রঙের মানুষের বসবাস তা কখনোই কুমু জানত না। আশেপাশের মানুষজন তার জীবনের গতিপথ পাল্টে দিতে থাকে। চেনামানুষগুলো তার কাছ থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়। জীবনটা যে এতটা কঠিন সেটা কোমল কখনোই বুঝতে পারে নি। নতুন জায়গায় নতুন পরিবেশে কোমল আসার পরে বুঝতে পারে জীবন সাজানো ফুলশয্যা নয়। এখানে অনেক ঘাত প্রতিঘাত এর মাধ্যমে মানুষ টিকে থাকে।

শেষ পর্যন্ত কি কুমু পারবে তার জীবনটাকে বদলে নিতে? অশুভ শ্রাবণ ধারা কি তার জীবনে কখনো সুখ বয়ে আনবে? আবার কি তার মা-বাবার ভালোবাসার বন্ধনের মত আরেকটা ভালোবাসার বন্ধন খুঁজে পাবে? এই সব প্রশ্নই সব পাঠকদের এক চরম বাস্তবতার সামনে দাঁড় করাবে। গল্পটা নিঃসন্দেহে অনেক ভালো লাগবে। আপনাদের সময় কে গুরুত্ব দেয়ার জন্যই আমাদের এই প্রচেষ্টা। আপনারা যাতে সময় কে কাজে লাগাতে পারেন তাই এখন আমাদের ওয়েবসাইট থেকেই সব বই পেয়ে যাবেন। তাই আর আর দেরি না করে গল্পটা ডাউনলোড করে পড়ে ফেলুন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.